যেভাবে পাবেন এই ৪ সরকারি ভাতা সুবিধা

যেভাবে পাবেন এই ৪ সরকারি ভাতা সুবিধা

সমাজের দুঃস্থ বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা,সমাজের অসচ্ছল প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে, মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে ও দেশের বয়োজ্যেষ্ঠ দুস্থ ও স্বল্প উপার্জনক্ষম অথবা উপার্জনে অক্ষম বয়স্ক জনগোষ্ঠীর সামাজিক নিরাপত্তা বিধানে, পরিবার ও সমাজে মর্যাদা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে সরকার। তার মধ্যে অন্যতম হলো তাদের জন্য ভাতা কর্মসূচি প্রবর্তন। প্রত্যেক মাসে একটি নির্দিষ্ট হারে এ ভাতা সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরণ করা হয়ে থাকে।

এক নজরে সরকার প্রদেয় কিছু ভাতা সুবিধাসমূহঃ

বয়স্ক ভাতাঃ

উপার্জনে অক্ষম বয়স্ক জনগোষ্ঠীর সামাজিক নিরাপত্তা বিধানে ১৯৯৭-৯৮ অর্থ বছরে এ ভাতা প্রবর্তন  করা হয়। বর্তমানে বয়স্ক ব্যক্তিকে জনপ্রতি মাসিক ৫০০ টাকা হারে ভাতা প্রদান করা হয়।

বয়স্ক ভাতা পাওয়ার যোগ্যতা/অযোগ্যতাঃ

(১) সংশ্লিষ্ট এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে ।

(২) জন্ম নিবন্ধন/জাতীয় পরিচিতি নম্বর থাকতে হবে ।

(৩) বয়স পুরুষের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৬৫ বছর এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৬২ বছর  হতে হবে। সরকার কর্তৃক সময় সময় নির্ধারিত বয়স বিবেচনায় নিতে হবে।

(৪) প্রার্থীর বার্ষিক গড় আয় অনূর্ধ ১০,০০০ (দশ হাজার) টাকা হতে হবে ।

(৫) বাছাই কমিটি কর্তৃক নির্বাচিত হতে হবে।

(৬) সরকারি কর্মচারী পেনশনভোগী হলে এ ভাতা পাওয়া যাবে না।

(৭) দুঃস্থ মহিলা হিসেবে ভিজিডি কার্ডধারী হলে এ ভাতা পাবে না ।

(৮) অন্য কোনোভাবে নিয়মিত সরকারী অনুদান/ভাতা প্রাপ্ত হলে ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রে অযোগ্য বলে গন্য হবে।

(৯) কোনো বেসরকারি সংস্থা/সমাজকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান হতে নিয়মিতভাবে আর্থিক অনুদান/ভাতা প্রাপ্ত হলে সে ভাতা পাওয়ার অযোগ্য।

কোথা থেকে ভাতা তুলবেন: উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে এ ভাতা পরিশোধ করা হয়।

 

অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতাঃ

সমাজের অসচ্ছল প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে ২০০৫-০৬ অর্থ বছরে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন সমাজসেবা অধিদফতরের মাধ্যমে অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা কর্মসূচি প্রবর্তন করা হয়। বর্তমানে জনপ্রতি মাসিক ৭০০ টাকা হারে এ ভাতা সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে ।

ভাতা প্রাপকের যোগ্যতা/অযোগ্যতাঃ

১. সংশ্লিষ্ট এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে;

২. প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন, ২০১৩ অনুযায়ী  সমাজসেবা কার্যালয় হতে নিবন্ধন ও পরিচয়পত্র গ্রহণ করতে হবে। প্রতিবন্ধী ব্যক্তি যে জেলার স্থায়ী বাসিন্দা সে জেলা হতে নিবন্ধন ও পরিচয়পত্র গ্রহণ করবেন;

৩. মাথাপিছু বার্ষিক আয় ৩৬,০০০ (ছত্রিশ হাজার) টাকার উর্ধে  নয় এমন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিগণ;

৪. আবেদনকারীকে অবশ্যই দুঃস্থ প্রতিবন্ধী হতে হবে;

৫. ৬ (ছয়) বছরের উর্ধে সকল ধরণের প্রতিবন্ধীকে ভাতা প্রদানের জন্য বিবেচনায় নিতে হবে;

৬. বাছাই কমিটি কর্তৃক নির্বাচিত হতে হবে।

৭. সরকারি কর্মচারী হলে কিংবা সরকারি কর্মচারী হিসেবে পেনশনভোগী হলে এ ভাতা পাবে না।

৮. অন্য কোনভাবে নিয়মিত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত হলে সে ভাতা পাওয়ার অযোগ্য।

৯. কোন বেসরকারি সংস্থা/সমাজকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান হতে নিয়মিতভাবে আর্থিক অনুদানপ্রাপ্ত হলে ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রে অযোগ্য বলে গন্য হবে।

কোথা থেকে ভাতা তুলবেন: উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে এ ভাতা পরিশোধ করা হয়।

বিধবা  স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ভাতাঃ

সমাজের দুঃস্থ বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলাদের কল্যাণে ১৯৯৮-৯৯ অর্থ বছরে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন সমাজসেবা অধিদফতরের মাধ্যমে এ ভাতা কর্মসূচি প্রবর্তন করা হয়। বর্তমানে জনপ্রতি মাসিক ৫০০ টাকা হারে এ ভাতা সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে ।

ভাতা প্রাপকের যোগ্যতা ও শর্তাবলী:

১.     সংশ্লিষ্ট এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে;

২.     জন্ম নিবন্ধন/জাতীয় পরিচিতি নম্বর থাকতে হবে;

৩.    বয়ঃবৃদ্ধা অসহায় ও দুঃস্থ বিধবা বা স্বামী পরিত্যক্তা মহিলাকে অগ্রাধিকার প্রদান করা হবে;

৪.     যিনি দুঃস্থ, অসহায়, প্রায় ভূমিহীন, বিধবা বা স্বামী পরিত্যক্তা এবং যার ১৬ বছর বয়সের নীচে ২টি সন্তন রয়েছে, তিনি ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন;

৫.     দুঃস্থ, দরিদ্র, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতাদের মধ্যে যারা প্রতিবন্ধী ও অসুস্থ তারা ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন;

৬.     প্রার্থীর বার্ষিক গড় আয়ঃ অনূর্ধ ১২,০০০ (বার হাজার) টাকা হতে হবে;

৭.     বাছাই কমিটি কর্তৃক নির্বাচিত হতে হবে।

কোথা থেকে ভাতা তুলবেন: উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে এ ভাতা পরিশোধ করা হয়।

 

মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতাঃ

সরকার কর্তৃক মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্য হতে নির্বাচিত প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধাকে মাসিক ১০০০০ টাকা হারে সম্মানী ভাতা প্রদান করা হয়।

ভাতা পাওয়ার যোগ্য মুক্তিযোদ্ধাঃ

১। যে মুক্তিযোদ্ধার বার্ষিক আয় মোটামুটি ১২,০০০ টাকার বেশি নয়।

২। কর্মক্ষম নন বা আংশিক কর্মক্ষম/ ভূমিহীন/ সহায়সম্বলহীন মুক্তিযোদ্ধা।

ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রে অযোগ্যতাঃ

১। যিনি সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন।

২। গ্রাচুইটি বা পেনশনের সুবিধাসহ যার বার্ষিক আয় ১২,০০০ টাকার উপরে।

৩। যিনি মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট বা বেসরকারি সংস্থা হতে নিয়মিত আর্থিক অনুদান পেয়ে থাকেন।

কোথা থেকে ভাতা তুলবেন: উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে এ ভাতা পরিশোধ করা হয়।

তথ্যসূত্রঃ সমাজকল্যান মন্ত্রনালয় ওয়েবসাইট

দেশ বাংলা নিউজ

দেশ বাংলা নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *