করোনার ভ্যাকসিন দৌড়ে বিজয়ী বলে ঘোষণা রাশিয়ার

করোনার ভ্যাকসিন দৌড়ে বিজয়ী বলে ঘোষণা রাশিয়ার

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেছেন রাশিয়া বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাস টিকা উদ্ভাবক হিসাবে নাম নথিভুক্ত করেছে। স্থানীয়ভাবে তৈরি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন দু মাস ধরে মানুষের ওপর পরীক্ষা করার পর সেটির ব্যবহারিক প্রয়োগের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। খবর বিবিসির

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের এর আগে নানাধরনের সন্দেহ প্রকাশ এবং প্রতিষ্ঠিত নিয়মকানুন মেনে চলার ব্যাপারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রী মিখাইল মুরাশকো ঘোষণা করেছেন যে, এই ভ্যাকসিন “খুবই কার্যকর এবং নিরাপদ প্রমাণিত হয়েছে” এবং পুতিন বলেছেন এই ভ্যাকসিন “প্রয়োজনীয় সব পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে”।

স্বাস্থ্য মন্ত্রী আরও বলেছেন যে, কয়েক হাজার মানুষের ওপর এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল অব্যাহত থাকবে।

পুতিন বলেছেন তিনি এই ভ্যাকসিনের গণ উৎপাদন চান। তিনি বলেন, তার এক কন্যা এই ভ্যাকসিন ব্যবহার করেছেন এবং শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়ার পর তিনি পুরো সুস্থ বোধ করেছেন।

বিভিন্ন দেশে একাধিক টিকার ট্রায়াল এই মুহূর্তে চলছে। এ মাসেই আরও আগের দিকে আমেরিকার সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞ অ্যান্টনি ফাউচি বলেছিলেন ভ্যাকসিন কারো ওপর প্রয়োগ করার আগে রাশিয়া “আসলেই তা যথাযথভাবে পরীক্ষা করে দেখবে” বলে তিনি আশা করেন।

রাশিয়া যে পরিমাণ দ্রুততার সাথে এই টিকা তৈরির কাজ চালাচ্ছিল তাতে পশ্চিমা দেশগুলোর বিজ্ঞানীরা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছিলেন দ্রুত টিকা বের করার জন্য কর্তৃপক্ষের চাপের মুখে রুশ গবেষকরা সম্ভবত পরীক্ষা পদ্ধতিতে কাটছাঁট করতে পারেন বলে তাদের আশংকা।

দেশ বাংলা নিউজ

দেশ বাংলা নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *