» খিলগাঁও, মেরাদিয়া এলাকার মানুষের আস্থার প্রতীক আমিনুল ইসলাম মিঠু

প্রকাশিত: ১৪. নভেম্বর. ২০২২ | সোমবার

                                                       মোস্তফা মন্টি:রাজধানীর খিলগাঁও, মেরাদিয়া এলাকার সাধারণ মানুষের আস্থার প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছেন খিলগাঁও ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মিঠু। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির মাধ্যমে সাধারণ  মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন ত্যাগী ও জনবান্ধব নেতা আমিনুল ইসলাম মিঠু। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে ১৯৯০ সালে আওয়ামী লীগের রাজনীতি শুরু করেন। রাজধানীর বিভিন্ন সময়ে হয়েছেন নির্যাতিত, তবুও দলের হাল ছাড়েননি। নিজের সততা, কর্মদক্ষতা ও সাধারণ মানুষের ভালোবাসাকে পুঁজি করে কাজ করে যাচ্ছেন দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য। এই কর্ম গুনেই রাজধানীর খিলগাঁও, মেরাদিয়া এলাকার মানুষের আস্থার প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছেন ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মিঠু। সারা বিশ্বসহ বাংলাদেশ যখন করোনা ভাইরাসের তান্ডবে থমকে দাঁড়িয়েছিল। যে সময় মানুষের ঘর থেকে বের হবার উপক্রম ছিল না তখনও নিজের সর্বস্ব দিয়ে মানুষের সেবা করে গেছেন আমিনুল ইসলাম মিঠু। করোনা ভাইরাসের চলাকালীন সময়ে মাস্ক বিতরন, জন সচেতনতা মূলক কাজ, এলাকাবাসীর খোঁজ খবর নেয়াসহ বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দিয়েছেন তিনি। সাধারণ মানুষের ভালোবাসা আর বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে ভালোবেসে খিলগাঁও ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী হয়েছেন আমিনুল ইসলাম মিঠু। খিলগাঁও ও মেরাদিয়া এলাকার একাধিক ব্যক্তি জানান, আওয়ামী লীগ নেতা আমিনুল ইসলাম মিঠু অত্যান্ত জনবান্ধব নেতা। সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকেন। আওয়ামী লীগের জন্য তিনি একজন নিবেদিত প্রাণ। খিলগাঁও ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মিঠু বলেন, আমি ১৯৯০ সাল থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি। যখন দল ক্ষমতায় ছিল না তখন অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আওয়ামী লীগের রাজনীতির জন্য অনেক মামলা খেয়েছি, জেল খেটেছি তবুও আওয়ামী লীগের রাজনীতি ছাড়িনি। আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় ছিল না তখন রাজনৈতিক মামলায় জেল থেকে বের হবার পর আওয়ামী লীগ নেতা মায়া চৌধুরী একটা সনদ দিয়েছে। সব সময় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে থেকে দেশের মানুষের জন্য এবং দলের জন্য কাজ করে যেতে চাই।‌‌ প্রথমে খিলগাঁও ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলাম, এরপর সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছি। এবারের কাউন্সিলে আমি সভাপতির পদ প্রত্যাশী। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৯ বার

[hupso]