» আগামী সপ্তাহে উজবেকিস্তানে শি-পুতিনের বৈঠক

প্রকাশিত: ০৭. সেপ্টেম্বর. ২০২২ | বুধবার

আগামী সপ্তাহে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং উজবেকিস্তানে এক শীর্ষ সম্মেলনে সাক্ষাৎ করবেন বলে জানা গেছে। বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাশিয়ার এক কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
চীনে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আন্দ্রেই ডেনিসভ সাংবাদিকদের বলেন, দুই নেতা উজবেক শহর সমরকন্দে ১৫ থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষ সম্মেলনে মিলিত হবেন।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা তাসকে ডেনিসভ বলেন, ‘১০ দিনেরও কম সময়ের মধ্যে সমরকন্দে এসসিও শীর্ষ সম্মেলনে আমাদের নেতাদের আরেকটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। আমরা বৈঠকের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি’।
ক্রেমলিন ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে সেনা পাঠানোর কয়েক সপ্তাহ আগে ফেব্রুয়ারিতেই বেইজিংয়ে পুতিন ও শি জিনপিংয়ের সবশেষ সাক্ষাৎ হয়। বেইজিং উইন্টার অলিম্পিকস উদ্বোধনের আগে গত ৪ ফেব্রুয়ারি চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মধ্যে বৈঠক হয়। সে সময় বেইজিং ও মস্কো পাঁচ হাজার শব্দের এক বিবৃতিতে দেশ দুটির অংশীদারিত্বের ‘কোনো সীমারেখা নেই’ বলে উল্লেখ করে। ফলে ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার বিষয়ে আগে থেকেই জানতেন চীনের শীর্ষ কর্মকর্তারা,পশ্চিমা গোয়েন্দা রিপোর্টে এমনটাই আভাস পাওয়া যায় বলে নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদেনে উঠে আসে।
ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের সমর্থন প্রস্তাব করার সময়, বেইজিং নিরপেক্ষ অবস্থান দেখাতে চেয়েছে এবং আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার মধ্যে রাশিয়ার অর্থনীতিকে সমর্থন করা থেকে সম্ভাব্য প্রতিক্রিয়া এড়িয়ে গেছে।

গত ২০ ফেব্রুয়ারি বেইজিং অলিম্পিকসের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। পরের সপ্তাহে রাশিয়ার পুতিন সরকার পূর্ব ইউক্রেনকে নিজেদের অংশ বলে সেখানকার দুটি অঞ্চলকে স্বাধীন ঘোষণা করে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া।
আমেরিকান ও ইউরোপীয়ান কর্মকর্তারা বলেন যে অলিম্পিক শেষ হওয়ার আগে ইউক্রেনে হামলা শুরু হয়নি। চলতি বছর শীতকালে, রাশিয়া আগ্রাসনের প্রস্তুতির জন্য চীন এবং পূর্বের অন্যান্য সীমান্ত থেকে সামরিক ইউনিট সরিয়ে নেয়। এটিই স্পষ্ট করে যে তাদের মধ্যে আস্থার সম্পর্ক গভীর।
চীন ও রাশিয়া বছরের পর বছর ধরে তাদের অর্থনৈতিক, কূটনৈতিক ও সামরিক সম্পর্ক জোরদার করে আসছে। শি জিনপিং ও পুতিন বেইজিংয়ে তাদের সর্বশেষ সম্মেলনের আগে জাতীয় নেতা হিসাবে ৩৭ বার দেখাও করেছেন বলে জানা গেছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৪ বার

[hupso]